কুয়াকাটায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ১

পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় কাওসার ঘরামীকে (২৪) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ সকালে কলাপাড়া উপজেলার বাবলাতলা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত কাওসার পাশের বাড়ির সামশুল হক ঘরামীর ছেলে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

এদিকে নিহত ওই ছাত্রীর মা সালমা বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এখনও মহিপুর থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে।

মহিপুর থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান জানান, ছাগলে গাছ খাওয়ার ঘটনায় ঝগড়া-ঝাটির জেরেই স্কুল ছাত্রীকে হত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে বোঝা যাচ্ছে। ঘটনা জড়িত কাওসারকে জিজ্ঞাসাবাদের পর আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হবে। গ্রেফতারকৃত কাওসার (জাল বুনন) জেলে শ্রমিক হিসেবে কাজ করে। তবে এ ঘটনায় ৩-৪জন জড়িত বলে ধারণা করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সংলগ্ন সেরাজপুর গ্রামে পূর্ব বিরোধের জেরে সুরভী আক্তার ইভাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। মহিপুর কো-অপারেটিভ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী নিহত ইভা। ঘটনার সময় বাবা ইউনুস ঘরামী বাড়ীতে ছিলেন না। মা সালমা বেগমের ডাকচিৎকারে এলাকার লোকজন এসে ইভাকে রক্তাক্ত অবস্থা উদ্ধার করে কুয়াকাটা হাসাপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।  এ ঘটনায় নিহতের বাবা ইউনুস ঘরামী বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ৪-৫ জনকে আসামি করে মহিপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

লাইক এবং শেয়ার দিয়ে পাশে থাকুন
20

Comments

comments